দুই বছর কারাদণ্ডের ভয়ে ১৯ বছর ধরে পলাতক, অবশেষে আত্মসমর্পণ

: সদর দক্ষিণ (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
: ২ সপ্তাহ আগে

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার মাদক মামলার এক আসামি ১৯ বছর পর পলাতক থেকে আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জানা যায়, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার ওলইন গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে ইউপি সদস্য হুমায়ন। ২০০২ সালে ৬০০ বোতল ফেনসিডিলসহ মাদক মামলার আসামি হন হুমায়ন। মামলায় তার দুই বছর সাজা হয়। এর পর থেকে তিনি ১৯ বছর পলাতক ছিলেন। 

বুধবার ইউপি সদস্য হুমায়ন আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

তবে ইউপি সদস্য হুমায়নের স্ত্রী বলেন, আমার স্বামী মামলা  করার পর ছয় মাস জেলহাজতে ছিলেন। তার পর আমার স্বামী হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে আসেন। এর পর আর হাজিরা দেননি। বুধবার ১৯ বছর পর নিজ থেকে আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।  

সংশ্লিষ্টরা জানান, ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মেম্বার হুমায়নসহ তিনজনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ১৬ এপ্রিল ২০০৩ সালে মামলাটি আমলে নিয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে অভিযোগ গঠন করা হয়। মামলার সব আসামি পলাতক থাকায় আদালত হুমায়ুনসহ প্রত্যেককে দুই বছর সাজা ও এক হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।