দু’শ নাটকের মাইলফলকে ইমরান হাসো


নয়ন কুমার বর্মন প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১১, ২০২২, ৪:৪৭ অপরাহ্ণ /
দু’শ নাটকের মাইলফলকে ইমরান হাসো
দু'শ নাটকের মাইলফলকে ইমরান হাসো

ছোট পর্দার নিয়মিত একজন অভিনেতা ইমরান হাসো। বর্তমানে টিভি নাটক সহ বাংলা চলচ্চিত্রে ও তার অবাধ বিচরণ লক্ষ করা যায়। একজন কমেডিয়ান হিসেবে নিজেকে সব সময় মেলে ধরেন ভিন্ন ভিন্ন চিত্রনাট্যে ভিন্ন ভিন্ন রুপে।

আজ ১১ ডিসেম্বর বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নাটক ও কৌতুক অভিনেতা ইমরান হোসেন অরফে ইমরান হাসোর শুভ জম্মদিন। উক্ত দিনটি কে ঘিরে নানা মুখি আয়োজন করার ইচ্ছা আছে ইমরান হাসোর। স্বল্প পরিসরে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে ইমরান হাসোর জম্মদিন পালন করা হবে বলে জানান হাসো।

অভিনেতা ইমরান বলেন, ছোট বেলায় স্বপ্ন দেখতাম একজন আইনজীবী হবো।পরিবারের বড় সন্তান আমি।আমার পরিবার মধ্যবিত্ত কিন্তু কখনো আমাকে কোনো বিষয় অভাব বুঝতে দেননি। তাদের স্বপ্ন ছিলো আমি তাদের মুখ উজ্জ্বল করবো।স্কুলে যখন পড়তাম তখন থেকেই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কমেডি করতাম।সবসময়ই পুরস্কার পাইতাম। এমনকি আন্ত স্কুল বিভাগীয় পর্যায় প্রতিযোগিতা করেছি।

২০১৪ সালে এসএসসি ২০১৬ এইচএসসি
এখন থিয়েটার এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগে অনার্স করছি তেজগাঁও কলেজে এবং আমি “রঙ্গনা নাট্যগোষ্ঠীর” একজন নাট্যকর্মী।

২০১৫ সালে বাংলাদেশের একমাত্র সেলিব্রিটি রিয়েলিটি শো “হা-শো” তে অডিশন দেই।
এরপর সিলেকশন হই। ঐ সময় আমি আমার ওস্তাদ তানভীর সরকার তিনি মীরাক্কেল ৭ এ ছিলেন এবং চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা চিকন আলী ভাইয়া। আমাকে অনেক সহযোগিতা করেন।

আর ঢাকায় এসে আমাদের “বুনোপায়রায়” আমি কমেডি অনুশীলন করতাম। সে সময় আমাকে আবু হেনা রনি ভাইয়া সহ
বাংলাদেশ কমেডি ক্লাবের সবার ভালোবাসা পেয়েছিলাম।অবশেষে অডিশনে টিকলাম। তখন অনেক ছোট ছিলাম আমি। প্রথম রাউন্ড থেকে বাদ পড়ে যাই। যদিও আমার পারফরম্যান্স খারাপ ছিলো না।এটা আর নাই বলি অনেক ইতিহাস।

কিন্তু ঐ সময় থেকে আমার বন্ধুদের দেওয়া নাম আমার নামের শেষে হাসো যুক্ত হও।
যা এখনো সবাই ইমরান হাসো বলে চিনেন।
আমি অভিনয় শিল্পী সংঘের একজন সদস্য।
আমার ২০০ তম নাটক আমার জন্মদিনে পূর্ন হলো এবং সবগুলোতে পাশ্ব চরিত্রে অভিনয় করেছি।

আমার অভিনীত অনেক নাটক মিলিয়ন মিলিয়ন ভিউজ।এর মধ্যে আমাকে এখনো অনেকে “স্বপ্ন আড্ডা” নাটকের “ছুম্মাচোর বলে ডাকেন,” বকুলপুর” নাটকের “রকেট বলে ডাকেন।

আমার অভিনীত সিনেমা ২০ টি।এর মধ্যে মুক্তি পেয়েছে।” নায়ক”, “অমানুষ, ” প্রেম চোর”,”শান””বসন্ত বিকেল”। আর সামনে মুক্তি পাবে আমার অভিনীত অন্যতম সিনেমা “বর্ডার (সুলতানপুর)” যা আমার ক্যারিয়ারের ভালো কাজ করার সাহস যুগিয়েছে। এবং “লাল শাড়ি” এ সিনেমাটি আমার ক্যারিয়ারের সুন্দর একটি কাজ।এবং “আগুন” তোলপাড়, নদীর জলে শাপলা ভাসে, প্রেমের বাঁধন” মুক্তি পাবে সামনে।

আমি নিয়মিত নতুন নতুন কাজ করার চেষ্টা করছি। সবাই দোয়া করবেন আমার জন্য।
১১ ই ডিসেম্বর আমার ২৫ তম জন্মদিন।আমার গ্রামের বাড়ি,শিহাড়া ইউনিয়ন, পত্নীতলা থানা,নওগাঁ জেলা,রাজশাহী বিভাগ।আমার সবার অনেক ভালোবাসা পাই। সবার ভালোবাসা নিয়ে বেঁচে থাকতে চাই।আমি আমার এ পর্যন্ত আসার জন্য আল্লাহর রহমত, আমার পরিবারের ফুল সাপোর্ট, আমার চেষ্টা এবং সবার ভালোবাসায় হয়তো সম্ভব হয়েছে।

পরিচিত তরুণ লেখক ও বাংলাদেশ চিত্রের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক মোহাম্মদ অঙ্কন তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন,”তার আসন্ন অভিনয়ের দিনগুলো যেন আরো সুন্দর হয়। ভাল ভাল সিনেমা ও নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে যেন আরো জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে। আমাদের নওগাঁ তথা পুরো রাজশাহী বিভাগকে তার অভিনয়ের মাধ্যমে পরিচিত ও মুখ উজ্জ্বল করতে পারে।ইমরান হাসোর জন্য রইলো সর্বদা শুভকামনা রইলো।”

লেখকঃ নয়ন কুমার বর্মন।
সাংবাদিক