সুন্দরগঞ্জে ‘অন্নদাময়ী সার্বজনীন দেবস্থান’ পুনঃপ্রতিষ্ঠার উদ্বোধন


news.shamimsarker@gmail.com প্রকাশের সময় : এপ্রিল ২৫, ২০২৩, ১১:৫৯ অপরাহ্ণ /
সুন্দরগঞ্জে ‘অন্নদাময়ী সার্বজনীন দেবস্থান’ পুনঃপ্রতিষ্ঠার উদ্বোধন

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় অন্নদাময়ী সর্বজনীন দেবস্থানের পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের চাচিয়া মীরগঞ্জ গ্রামের রায়পাড়া অন্নদাময়ী সার্বজনীন দেবস্থানের পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও উদ্বোধন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন তারাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম লেবু। এসময় মঙ্গলদীপ প্রজ্বালন করেন উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি নিমাই ভট্টাচার্য।

অন্নদাময়ী সার্বজনীন দেবস্থানের সভাপতি কুশল রায়ের সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা হিন্দু বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক দেবাশীষ কুমার সাহা, লেখক ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক সঞ্জয় সরকার, লেখক ও সংগঠক কঙ্কন সরকার, ভক্ত প্রাণবল্লভ রায় প্রমূখ। পরে অতিথিগণ অন্নদাময়ী সার্বজনীন দেবস্থানের শুভ উদ্বোধন করেন। শেষে নামফলক উম্মোচন করা হয়।

উল্লেখ্য, ১৯৩০ সালের দিকে চাচিয়া গ্রামের অন্নাদাময়ী দাস্যা নামের এক ব্যক্তি ১০ শতাংশ জমি মন্দিরে দান করেন। পরে সেই জমিতে ১৯৩৮ সালে ‘অন্নদাময়ী সার্বজনীন দেবস্থান’ নামে একটি মন্দির প্রতিষ্ঠা হয়। জমিটি সিএস ও এসএ খতিয়ানমূলে দেবস্থান হিন্দু সাধারনের ব্যবহার্য মর্মে রেকর্ডভুক্ত হয়েছে। স্বাধীনতা পূর্ববর্তী কাল থেকে সেখানে বিভিন্ন দেব-দেবীর পূজা অর্চণা হয়ে আসছিল। পরে স্থানীয় খোকা রাম রায় মন্দিরের জমিটি ক্রয় সূত্রে মালিক বনে যান এবং নিজ দখলে নিয়ে বিআরএস খতিয়ানে রেকর্ডভুক্ত করেন। তার মৃত্যূর পর পৈত্রিক সূত্রে দুই ছেলে বাবু রাম রায় ও নীরদ চন্দ্র রায় জমিটি দখলে নিয়ে ভোগ করেন। পরবর্তীতে জমিটি অন্যত্র বিক্রিও করেন। মন্দিরের জমি বেদখল হয়ে যাওয়ায় জমিটি উদ্ধারে স্থানীয়ভাবে কয়েকদফা সালিশি বৈঠক হয়। পরে জমিটি উদ্ধার করা হয়। একইসঙ্গে উদ্ধার হওয়া জমিতে পূণরায় মন্দির প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।